অনৈতিক কাজের সময় ধরা পড়ল শিক্ষক ও কলেজছাত্রী


বগুড়ার কাহালু উপজেলায় অনৈতিক কর্মকাণ্ডের দায়ে আটক হয়েছেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক প্রধান শিক্ষক ও কলেজছাত্রী। গত বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার দুবলাগাড়ী এলাকায় একটি আধাপাকা সড়কের নির্জন এলাকায় যৌনতায় লিপ্ত হন তারা। এলাকাবাসী তাদের দেখে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

আটক প্রধান শিক্ষকের নাম আব্দুল বারী (৪০)। তিনি উপজেলার মুরইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত আছেন।

কাহালু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়া লতিফুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, এর আগেও আটক প্রধান শিক্ষক আব্দুল বারীর বিরুদ্ধে ৫ম শ্রেণির এক ছাত্রীর শ্লীনতাহানির অভিযোগ উঠেছিল। তবে তার বিরুদ্ধে ওই ছাত্রীর পরিবার কোনো অভিযোগ দায়ের করেনি। এ কারণে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার নির্দেশনায় উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা শামীম ইকবাল ওই প্রধান শিক্ষককে নিজ জিম্মায় নেন। তিনি বারীর বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে বিভাগীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবেন বলে কথা দিয়েছিলেন।

কাহালু উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এস এম সারওয়ার জাহান জানান, প্রধান শিক্ষক আব্দুল বারীর বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]