অপহরণের ১১ দিন পর মাদ্রাসা ছাত্রী উদ্ধার, গ্রেফতার ২


গৌরনদীতে দশম শ্রেনীর এক মাদাসা ছাত্রীকে অপহরনের ১১ দিন পরে উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। পাশাপাশি এ ঘটনায় ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলো, গৌরনদী উপজেলার নাঠৈ গ্রামের আমিনুল ইসলাম হাওলাদারের ছেলে রাসেল হাওলাদার (২০) ও সম্পর্কের রাসেলের মামা জুলহাস সরদার(৩৫)।

 

অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, , উপজেলার শাওড়া গ্রামের বাসিন্ধা ও গৌরনদী আল হেলাল দাখিল মাদ্রাসার ১০ শ্রেনীর ছাত্রী (১৫)কে তার সহপাঠি গত ২ মে বিকেলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর বাড়ির পাশের সড়ক থেকে তাকে অপহরনকারীরা জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায়। ঘটনার ১০দিনের মাথায় রোববার রাতে মাদ্রাসা ছাত্রী মোবাইল ফোনে তার স্বজনদের জানায়, তাকে তাকে জোর পূর্বক অপহরণ করে তুলে এনে রাসেল হাওলাদার নামেএক বখাটের সাথে বিয়ে দেয়া হয়েছে। ওই বখাটে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছে। বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করা হলে সোমবার সকালে নাঠৈ গ্রাম থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার করার পাশাপাশি রাসেল হাওলাদারসহ তার এক সহযোগীকে আটক করা হয়।

 

এদিকে অপহৃত স্কুল ছাত্রীর বাবা বাদী সোমবার (১৩ মে) দুপুর গৌরনদী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করে গৌরনদী মডেল থানার এসআই মোঃ তৌহিদুজ্জামান জানান, দায়েরকৃত মামলায় অপহৃতা মাদ্রাসা ছাত্রীর এক সহপাঠীসহ ৬ জনকে আাসামী করেছেন। আটক রাসেল হাওলাদার ও তার সহযোগী জুলহাস সরদারকে ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি অপহৃতা মাদ্রাসা ছাত্রীকে মেডিকেল পরীক্ষার প্রেরণের প্রস্তুতি চলছে।


বরিশালট্রিবিউন.কম’র (www.barisaltribune.com) প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।