আমতলীতে স্ত্রীকে পিটিয়ে দু’হাত ভেঙ্গে দিয়েছে স্বামী!

  • 22
    Shares

আমতলী প্রতিনিধি : বাবার বাড়ী থেকে জুয়া খেলার টাকা এনে দিতে অস্বীকার করায় দু’সন্তানের জননী ছোকানুর বেগমকে পিটিয়ে (৪০) দু’হাত ভেঙ্গে দিয়েছে স্বামী মজিবর মোল্লা। ঘটনা ঘটেছে রবিবার সকালে আমতলী উপজেলার উত্তর টিয়াখালী গ্রামে। আহত গৃৃহবধুকে স্বজনরা উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। জানাগেছে, গত ৩০ বছর পূর্বে মজিবুর রহমান মোল্লার সাথে ছোকানুর বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামী মজিবর মোল্লা জুয়া খেলে আসছে বলে এমন অভিযোগ স্ত্রী ছোকানুর বেগমের। ১৯৯৫ সালে ছোকানুরের বাবা ধলু তালুকদার মারা যায়।

এরপরই নেমে আসে ছোকানুরের জীবনে নির্যাতন। যখনই জুয়া খেলার টাকার প্রয়োজন হয় তখনই স্ত্রী ছোকানুর বেগমকে বাবার বাড়ীর জমি বিক্রি করে টাকা এনে দিতে চাপ প্রয়োগ করে সে। টাকা না এনে দিলেই নামে অমানষিক নির্যাতন এমন অভিযোগ স্ত্রী ছোকানুরের। দু’সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে সে বাবার বাড়ী থেকে টাকা এনে দেয়। গত মাসে ছোকানুর ২০ হাজার টাকা বাবার বাড়ী থেকে এনে দিয়েছে। ওই টাকা জুয়া খেলে হারিয়ে ফেলে। রবিবার সকালে স্ত্রীকে বাবার বাড়ী থেকে আবার জমি বিক্রি করে টাকা এনে দিতে বলে মজিবর। স্ত্রী ছোকানুর ওই টাকা এনে দিতে অস্বীকার করে। একে ক্ষিপ্ত হয়ে মজিবর তাকে (স্ত্রী) বাঁশের লাঠি দিয়ে পিটিয়ে বেধরক মারধর করে। প্রাণ রক্ষায় প্রতিবেশী আমিনুলের ঘরে আশ্রয় নেয়। ওই ঘরে উঠে মজিবর ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে মেরে ফেলার চেষ্টা করে। কিন্তু ওই ঘরের লোকজনের প্রচেষ্টায় সে (ছোকানুর) জীবনে রক্ষা পায় এমনটা জানালো প্রত্যক্ষদর্শী আমিনুল ও সোবাহান বিশ্বাস। স্বামী মজিবরের মারধরে তার দু’হাত ভেঙ্গে গেছে। খবর পেয়ে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আহত ছোকানুরের দুই হাত ভেঙ্গে গেছে। এছাড়াও তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহৃ রয়েছে। তার চিকিৎসা চলছে।
আহত ছোকানুর বেগম বলেন, বিয়ের ৩০ বছর ধরেই টাকার জন্য মারধর করে আসছে। সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে নিরবে সহ্য করেছি। তিনি আরো বলেন, বাবার মৃত্যুর পর থেকেই আমার স্বামী আমাকে বাবার বাড়ীর জমি বিক্রি করে টাকা এনে দিতে বলে। টাকা না এনে দিলেই আমার উপর অমানষিক নির্যাতন চালায়। বিয়ের ৩০ বছরে অন্তত দুই লক্ষ টাকা এনে দিয়েছি। সমুদয় টাকা জুয়া খেলে হারিয়ে ফেলেছে। জুয়া খেলে টাকা হারিয়ে ফেললেই পুনরায় টাকা এতে দিতে বলে। গত মাসেও বাবার বাড়ী থেকে ২০ হাজার টাকা এনে দিয়েছি। ওই টাকাও হারিয়ে ফেলেছে। এখন আবার টাকা এনে দিতে বলে। এ টাকা এনে দিতে আমি অস্বীকার করায় আমাকে মারধর করে দু’হাত ভেঙ্গে দিয়েছে।

আহত ছোকানুরের অষ্টম শ্রেনীতে পড়ুয়া কন্যা বলেন, মা টাকা এনে না দিলেই বাবা মাকে মারধর করে।
আহত ছোকানুরের মা আলহাজ্ব বকফুল বিবি বলেন, মেয়ের সুখের দিকে তাকিয়ে যখনই টাকা চায় তখনই দিয়ে দেই। ওই টাকা নিয়ে ভালো কিছু করলেও তো হয়। তিনি আরো বলেন, গত মাসেও ২০ হাজার টাকা দিয়েছি। টাকা নিয়ে জুয়া খেলে হারিয়ে ফেলেছে। কিন্তু এখন আর পারছি না।

স্বামী মজিবর মোল্লার সাথে মুঠোফোনে (০১৭৮১২১১৫৯৩) যোগাযোগ করা হলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।
আমতলী থানার ওসি মোঃ আবুল বাশার বলেন, খবর পাইনি। পুলিশ পাঠিয়ে খোজ খবর নিচ্ছি। তিনি আরো বলেন, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


  • 22
    Shares

[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন[email protected]এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]