আম্পান : পথে বসিয়ে দিয়ে গেছে রাজশাহীর আমচাষীদের

  • 185
    Shares

রাজশাহী : ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাব লিচুচাষিদের পথে বসিয়ে দিয়ে গেছে। আর আমের ভরা মৌসুমে জেলার পর জেলায় আম ঝরে পড়েছে। ফাটল ধরেছে লিচুতে। আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও রাজশাহীর পাশাপাশি সাতক্ষীরা, যশোর, কুষ্টিয়া, ঝিনাইদহ, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা, নাটোর ও নওগাঁ জেলায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

চাষিরা বলছেন, করোনা ভাইরাস তাদের যে ক্ষতি করেছে, তার চেয়েও কয়েকগুণ বেশি ক্ষতি হয়েছে ঘূর্ণিঝড় আম্পানে।

ঘূর্ণিঝড় আম্পানে অধিকাংশ জেলাতেই ২০ থেকে ২৫ শতাংশ আম ঝরে পড়েছে।

রাজশাহী জেলায় ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে প্রায় ২০-২৫ শতাংশ আম ঝরে পড়েছে। এতে মাথায় হাত পড়েছে আমচাষিদের। আম ছাড়াও লিচু, কলা, ভুট্টা, পেঁপে ও ধানসহ অন্য ফসলেরও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন রাজশাহী অঞ্চলের চাষিরা।

রাজশাহীর পুঠিয়া, দুর্গাপুর, বাঘা, চারঘাট, পবা, বাগমারা, গোদাগাড়ি মোহনপুর ও তানোরেও ঝড়ে আমসহ ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আমের সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে বাঘা-চারঘাট, পুঠিয়া ও দুর্গাপুরে। এই চার উপজেলায় আমচাষ সাধারণত বেশি হয়।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শামসুল হক বলেন, আমাদের ধারণা গড়ে ২০-২৫ শতাংশ আমের ক্ষতি হয়েছে। গড়ে ১৫ শতাংশের কিছু বেশি আম ঝরে পড়েছে।

রাজশাহী জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. হামিদুল হক বলেন, সকাল থেকে বিভিন্ন উপজেলায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণে উপজেলা প্রশাসনকে নির্দেশনা দিয়েছিলাম। সে সময় তাদের সাথে কথা বলে মনে হয়েছে, রাজশাহীর বাগানগুলোয় ২০ শতাংশ আম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে বিস্তারিত ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ পরে জানা যাবে। জেলায় আম-লিচু ছাড়াও বোরো ধান, পানসহ কৃষি ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। গ্রামাঞ্চল থেকে কিছু বাড়িঘর ভেঙে পড়ার খবরও পেয়েছি। ইউএনও ও কৃষি কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টরা খোঁজ-খবর নিয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন করবেন। আর এই প্রতিবেদন তৈরি করতে একটু সময় লাগবে।


  • 185
    Shares

[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন[email protected]এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]