ইউপি মেম্বারের বিরুদ্ধে কৃষক নির্যাতনের অভিযোগ


শালিস বিচারের টাকা পরিশোধ না করায় মোকলেছুর রহমান (৬০) নামের এক কৃষককে বেদম ভাবে পিটিয়ে আহত করেছে স্থানীয় ইউপি মেম্বার আলমগীর হোসেন। পরে আহত মোকলেছকে লালমোহন হাসপাতালে ভর্তি করে স্বজনরা। গত রবিবার দুপুরে লালমোহন উপজেলার পশ্চিম চরউমেদ ইউনিয়ন সংলগ্ন উত্তর ফ্যাশন গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

 

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বৃদ্ধ মোকলেছুর রহমান জানান, আমার সাথে প্রতিবেশি সুমন গংদের বাড়ির সীমানা সংক্রান্ত পুর্ব বিরোধ চলছে। এ বিরোধের সুত্র ধরে আমাকে ফাঁসানোর জন্য সুমন পরিকল্পিত একটি ভুয়া মারপিটের অভিযোগ দেয় আলমগীর মেম্বারের কাছে। গত ২৩ ডিসেম্বর এই ভুয়া মারপিটের সাজানো শালিসের আয়োজন করে সুমন। সেখানে আমার বিরুদ্ধে পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা ধার্য করে আলমগীর মেম্বার।

 

নিরুপায় হয়ে আমি পনেরো হাজার টাকা পরিশোধ করি। বাকি পয়ত্রিশ হাজার টাকা পরিশোধ না করায় গত রবিবার দুপুরে আলমগীর মেম্বার আমার পালিত গরু নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এতে বাধা দিলে আলমগীর মেম্বার আমাকে প্রকাশ্য মানুষের সামনে এলোপাথারীভাবে বেদম মারপিট করে জখম করে।

 

আমি প্রশাসনের কাছে এই নির্যাতনের বিচার চাই। এ ব্যপারে আলমগীর মেম্বার বলেন, মোকলেছ কোনো কথা শুনে না। শালিস বিচারে যে রায় হয়েছে তা সে মানে না। এজন্য ভয়ভীতি লাগানোর জন্য কয়েকটা ধাক্কা ধুক্কা মেরেছি। এর পর ও যা করে করুক। কিচ্ছু করার নাই।


[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন[email protected]এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]