ইন্দুরকানীতে প্রধান শিক্ষকের হামলায় গনিত শিক্ষক আহত


সৈয়দ মাহফুজ রহমান : পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলার পশ্চিম বালিপাড়া পাইলট স্কুলের প্রধান শিক্ষক নেছার উদ্দিনের আর্থিক অনিয়মের প্রতিবাদ করায় হামলার শিকার হয়ে আহত হয়েছেন একই বিদ্যালয়ের গনিত শিক্ষক মো. শওকত হোসাইন ।
গতকাল ৯ সেপ্টেম্বর সোমবার সকাল ১০ টায় বিদ্যালয়ের শিক্ষদের সভা চলাকালে এ ঘটনা ঘটে। এঘটনায় এলাকায় চাঞ্চ্যল্যের সৃস্টি হয়েছে। স্থানীয় ও বিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ঠদের সাথে কথা বলে জানাগেছে, বিভিন্ন আর্থিক বিষয় ও বিল ভাউচারের হিসাব নিয়ে সভা চলাকালে গনিত শিক্ষক শওকত হোসাইনের সাথে বাক বিতন্ডতা শুরু হয়। এক পর্যায় প্রধান শিক্ষক নেছার উদ্দি ক্ষিপ্ত হয়ে গনিত শিক্ষককে চড়, কিল, ঘুষি মারতে থাকেন। সেই সাথে অকথ্য ভাষায় গালা গাল করেন এবং প্রধান শিক্ষকের হাতে থাকা কলম দিয়ে গনিত শিক্ষক শওকত হোসেনের কপালে আঘাত করেন, সভাস্থলে শুরু হয় হুলুল কাণ্ড।


সভাস্থলে উপস্থিত শিক্ষকরা আহত শিক্ষককে উদ্ধার করে পাশ্বর্বর্তী উপজেলা মোড়েলগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চোখের ভ্রুতে ঢোকা কলমের পিন অপরেশন করে অপসারন শেষে সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন শিক্ষক জানান, প্রধান শিক্ষক স্কুলের বিভিন্ন ভাউচার দিয়ে টাকা পয়সা তছরুপ করেন। ঘটনাটি অবশেষে ফাস হওয়ায় এসব কান্ড ঘটেছে। সহকারি শিক্ষক শওকত প্রতিবাদ করলে মিটিংএ প্রধান শিক্ষক নেছার উদ্দিন ক্ষিপ্ত হয়ে সহকারি শিক্ষক শওকতকে কিল ঘুষি মারেন এবং তার হাতের কলম দিয়ে সহকারি শিক্ষক শওকতের চোখের ভ্রুতে আঘাত করে এতে শিক্ষ শওকত মারাত্মক আহত হন।

এ ব্যপারে সহকারি শিক্ষক শওকত হোসাইন জানান, প্রধান শিক্ষক আমাদের বিদ্যালয়ের মূল একাডেমিক ভবনে উপরের তিনটি রুমে তিনি ফ্যাসিলি নিয়ে আবাসিক থাকে, যার বিনিময়ে বিদ্যালয়ে তিনি কিছুই দেয় না। ঠিকমত বিদ্যালয়ের আয় ব্যায়ের হিসেব দেন না প্রধান শিক্ষক নেছার উদ্দিন। তার স্বেচ্ছাচারিতায় অতিষ্ঠ আমরা কিছু বলতে পারিনা। তিনি আরো জানান, এঘটনা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার স্যারকে অবহিত করা হয়েছে। প্রধান শিক্ষকের কোন অনিয়ম প্রতিবাদ করলেই তিনি ক্ষেপে যান।
পশ্চিম বালিপাড়া পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষ নেছার উদ্দিন জানান. এখানে কথার কাটাকাটি হয়েছে সামান্য, অন্যকোন ঘটনা ঘটেনি বলে তিনি এড়িয়ে যায়।

এ সময় উপস্থি’ত ছিলেন সহকারী প্রধান মো. মনিরুল ইসলাম, সহকারী শিক্ষক তপন কুমার হালদার, মনিরুজ্জামান জোমাদ্দার, শামিম, শিবসঙ্কর ও আহসানুজ্জামান। এ বিষয়ে স্কুল কমিটির সভাপতি ও বালিপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান কবির হোসেন কয়াতী জানান ঘটনা আমি শুনেছি এটা দুঃক্ষ জনক এ ঘটনার কঠোর বিচার হবে।আহত শিক্ষক শওকত হোসাইন উপজেলা উত্তর কলারনের নুর মোহাম্মদ হাওলাদারের পুত্র ও হামলাকারী প্রধান শিক্ষক নেছার উদ্দিনের বাড়ী পাশ্ববর্তী মোড়েলগঞ্জ উপজেলার গুলিশাখালি গ্রামে।


বরিশালট্রিবিউন.কম’র (www.barisaltribune.com) প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।