ইরানের হামলায় ১১ মার্কিন সেনা আহত


ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ঘাঁটিতে চালানো ইরানের হামলায় কোনও মার্কিন সেনা হতাহতের শিকার হয়নি দাবি করা হলেও ১১ জনের মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে চিকিৎসার কথা জানা গেছে। মানসিক চাপে মস্তিষ্কে ক্ষতির লক্ষণ দেখা দেওয়া তাদের চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। মার্কিন সামরিক কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

গত ৮ জানুয়ারি ইরানের কুদস ফোর্সের কমান্ডার কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার বদলা নিতে ইরাকের মার্কিন বিমান ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় তেহরান। দুটি ঘাঁটিতে অন্তত ২২টি ব্যালিস্টিক মিসাইল ছোড়ে ইরানের সেনাবাহিনী (রেভ্যুলশনারি গার্ড)। এ হামলায় অন্তত ৮০ জন মার্কিন সেনা নিহত হয়েছে বলে ইরানের পক্ষ থেকে দাবি করা হলেও যুক্তরাষ্ট্র দাবি করে তাদের কোনও সেনা হতাহত হননি।

তবে এবার অন্তত ১১ জনের চিকিৎসা নেওয়া কথা জানা গেল। মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ডের মুখপাত্র ক্যাপ্টেন বিল উরবান এক বিবৃতিতে বলেন, আইন আল-আসাদ ঘাঁটিতে ৮ জানুয়ারির ওই হামলায় তাদের কোনো সেনা নিহত হননি। বিস্ফোরণে মানসিক চাপে মস্তিষ্কে ক্ষতির কারণে বেশ কয়েকজনকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তাদের পরীক্ষার ভেতর রাখা হয়েছে।

এছাড়া সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে বেশ কয়েকজন সেনাকে জার্মানি ও কুয়েতে মার্কিন স্থাপনায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বিল উরবান। তিনি বলেন, দায়িত্ব পালনে উপযুক্ত বলে মনে হলে তাদের আবার ইরাকে ফিরিয়ে আনা হবে।এর মধ্যে আটজনকে জার্মানি ও তিনজনকে কুয়েত নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ইরাকের আনবার মরুভূমির বিশাল ঘাঁটিতে এখনও প্রায় দেড় হাজারের মতো মার্কিন সেনা মোতায়েন রয়েছে।এক সিনিয়র কর্মকর্তা বলেন, এই সেনাদের মানসিক সমস্যা হামলার সপ্তাহখানেক পরে দেখা গেছে। প্রাথমিকভাবে তেমন কোনও লক্ষ্মণ ছিলো না। তাই তাদের আহত হওয়ার ব্যাপারটি জানতেন না নেতারা।


[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]