ইসলাম নিয়ে কটুক্তি, ছাত্র অধিকার পরিষদের নেত্রী বহিস্কার

  • 7
    Shares

ইসলাম ধর্ম অবমাননা করার দায়ে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার দফতর সম্পাদক ও একই বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশ্ব হিন্দু সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ককে ছাত্র অধিকার পরিষদ থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। দাবি উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিস্কার করারও।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী তার কটূক্তিমূলক কিছু ফেসবুক পোস্ট ও কমেন্ট ছড়িয়ে পড়ার পর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা জানান, ওই ছাত্রী দীর্ঘদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিভিন্ন পোস্ট ও কমেন্টের মাধ্যমে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে বাজে নেতিবাচক মন্তব্য করে আসছিল। তার এইসব পোস্ট ও কমেন্টের স্ক্রিনশট বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গ্রুপে ছড়িয়ে পড়লে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্থায়ী বহিষ্কারের দাবি ওঠে।

স্ক্রীনশোটগুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার অল্প সময়ের মধ্যেই ওই নেত্রীকে সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদ থেকে বহিস্কার করা হয়। একইসাথে স্থায়ীভাবে বহিস্কার কেন করা হবেনা তা জানতে চেয়ে ৭ দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক আবু বকর খানের সাথে কথা হলে তিনি জানান, ‘আমরা কিছুদিন ধরেই বিষয়গুলো লক্ষ্য করেছি, পরবর্তীতে আমরা তাকে কয়েকবার (ধর্ম ও মতের প্রতি সহনশীল ও শ্রদ্ধাশীল হওয়ার জন্য) বোঝানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে তাকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মোস্তফা কামাল বলেন, ‘ওই শিক্ষার্থীর বেশ কয়েকটা স্ক্রিনশট আমি পেয়েছি। সেগুলো পর্যালোচনা করছি। আগামী মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয় খুললে আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যবস্থা নেবো।’


  • 7
    Shares

[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]