জনি হত্যা : মঠবাড়িয়া আ’লীগ সভাপতিসহ ১৯ জনকে অব্যাহতি


পিরোজপুর : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় চাঞ্চল্যকর জনি হত্যা মামলা আমলে নিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত (মঠবাড়িয়া) মামলাটি আমলে নিয়েছেন।

এর আগে এ মামলায় ২১ জনকে অভিযুক্ত করে ও মঠবাড়িয়া আওয়ামী লীগ সভাপতিসহ ১৯ জনকে অব্যাহতি দিয়ে চার্জশিট আদালতে দাখিল করে ডিবি পুলিশ। পিরোজপুর ডিবি পুলিশের কর্মকর্তা ওসি মিজানুর রহমান তদন্ত শেষে গত ১ অক্টোবর উপজেলা জুডিশিয়াল আদালতে দাখিল করেন।

মামলায় যারা অব্যাহতি পেয়েছেন তারা হলেন- উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও পৌর মেয়র রফিউদ্দিন আহমেদ ফেরদৌস, সাংগঠনিক সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রিপন জমাদ্দার, সহ-সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন হাওলাদার, সাবেক যুবলীগ সভাপতি শাকিল আহমেদ নওরোজ, যুবলীগ সহ-সভাপতি বাবু শরীফ, আবুল কালাম মোল্লা, জুনায়েদুর রহমান (জুয়েল মেম্বার) মিজানুর রহমান ওরফে কালা মিজান, বাচ্চু বেপারি, হাফিজুর রহমান হায়দার, জাকির, দুলাল জমাদ্দার, এমাদুল হোসেন, আমির খান, বশির আহম্মেদ হাওলাদার, ভুলু, নুরুজ্জামান, মাইনুল আহসান, হানিফ হাওলাদার।

উল্লেখ্য, গত ২৫ মার্চ ২০১৯ তারিখ সকালে স্বতন্ত্রপ্রার্থী রিয়াজ উদ্দিনের সমর্থক জনি তালুকদারকে উপজেলার গুলিশাখালীর কবুতরখালী গ্রামে নির্বাচনী প্রচারণাকে কেন্দ্র করে খুন করা হয়। এ ঘটনায় জনির দু:সম্পর্কের চাচা স্বপন তালুকদার বাদী হয়ে ৩৬ জনকে আসামি করে মঠবাড়িয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।


[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]