ধর্ষণে বিদেশ ফেরত যুবতী সন্তানের মা ,প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে মামলা


নিজস্ব প্রতিবেদক : ধর্ষণে বিদেশ ফেরত যুবতী সন্তানের মা হয়ে প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। ১১ জুলাই বৃহস্পতিবার বরিশালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ধর্ষিতা বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় বাবুগঞ্জ উপজেলার ঠাকুর মল্লিক গ্রামের পলাশ সিকদারকে অভিযুক্ত করা হয়।

অভিযোগে তিনি ট্রাইব্যুনালে বলেন, গার্মেন্ট ভিসায় জর্দান গিয়ে ২০১৪ সালের ৭ মে হতে পলাশের স্ত্রী জাহানারা বেগমের নামে ১৮ লাখ ৩০ হাজার টাকা পাঠান। ২০১৬ সালে দেশে ফিরে টাকা আনার জন্য পলাশের বাড়ি যাওয়া আসা করলে পলাশ তাকে কুপ্রস্তাব দিত। জাহানারা চিকিৎসার জন্য ভারত গেলে পলাশ স্ত্রীর কথা গোপন রেখে ২০১৭ সালের ৩ নভেম্বর মুঠোফোনে তাকে টাকা আনার জন্য বাড়িতে ডেকে নেয়। ঘরে প্রবেশ করলে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

ডাক চিৎকার দিতে গেলে খুন জখমের হুমকি দেয়।এভাবে পলাশ প্রায়ই তাকে ধর্ষণ করে। এতে ধর্ষিতা অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে পলাশ তাকে হুমকি দিয়ে চট্টগ্রামে পাঠিয়ে দেয়। সেখানে তার বাচ্চা ভূমিষ্ট হয়। পলাশকে জানানো হলে তিনি বাচ্চাসহ তাকে খুন করার হুমকি দেয়। এব্যাপারে মামলা করতে থানায় গেলে থানা পুলিশ মামলা নেয়নি। এধরণের অভিযোগ দেয়া হলে ট্রাইব্যুনাল বাবুগঞ্জ থানা পুলিশকে অনুসন্ধান শেষে প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দেন বলে আদালত সূত্র জানায়।


বরিশালট্রিবিউন.কম’র (www.barisaltribune.com) প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।