‘ধর্ষণ ঠেকাতে না পারলে উপভোগ করুন’


ভাগ্য অনেকটা ধর্ষণের মতো। যদি বাধা দিতে ব্যর্থ হন তাহলে বরং উপভোগ করুন। কেরালার কংগ্রেস সাংসদ হিবি ইডেনের স্ত্রীর এ হেন ফেসবুক পোস্ট ঘিরে সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়েছে তুমুল বিতর্কঝড়।

মঙ্গলবার সকালে বিতর্কিত ফেসবুকে পোস্টটি অবশ্য মুছে ফেলেন বিধায়কপত্নী আনা লিন্ডা ইডেন। কিন্তুত ততক্ষণে যা ক্ষতি হওয়ার তা হয়ে গিয়েছে। ভাগ্যের সঙ্গে ধর্ষণের মিল খুঁজতে গিয়ে তাকে উপভোগ করার নিদান দিয়ে স্বাভাবিক ভাবেই জনরোষের মুখে পড়েছেন আনা।

বিতর্কিত বাণীর সঙ্গে দু’টি পারিবারিক ভিডিও ক্লিপিংও পোস্ট করেছিলেন আনা। তার মধ্যে একটি সোমবার কোচিতে ভারী বৃষ্টি হলে তাঁর শিশুসন্তানকে বাড়ি থেকে উদ্ধার সংক্রান্ত। দ্বিতীয় ভিডিওটিতে তাঁর বিধায়ক স্বামী হিবি ইডেনকে সিজলারের স্বাদ উপভোগ করতে দেখা গিয়েছে।

উল্লেখ্য, গত লোকসভা নির্বাচনে প্রথম বার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে নেমে এর্নাকুলম কেন্দ্র থেকে জয়লাভ করেন কংগ্রেস প্রার্থী হিবি ইডেন। গত সোমবার প্রবল বর্ষণের জেরে জলমগ্ন হয় কোচি শহর। সোশ্যাল মিডিয়ায় জলে ডুবে যাওয়া বাসভবনের বেশ কিছু ছবি পোস্ট করেন আনা লিন্ডা ইডেন। সে সব নিয়ে বিশে, উচ্চবাচ্চ না হলেও তাঁর ধর্ষণ সংক্রান্ত পোস্টটিতে বিতর্কের পারদ বিলক্ষণ চড়েছে।

পোস্টে তীব্র প্রতিক্রিয়ার জেরে রীতিমতো কোণঠাসা হয়ে পড়েন পেশায় সাংবাদিক আনা। সেই কারণে এদিন সকালেই তিনি পোস্টটি মুছে ফেলার পরে ক্ষমা চেয়ে অন্য একটি পোস্টও তিনি করেন। সেই পোস্টে আনা জানিয়েছেন, ধর্ষণ সম্পর্কে ওই মন্তব্য করে কোনও নিগৃহিতাকে তিনি আহত করতে চাননি।

এই প্রসঙ্গে উঠে পড়ছে ধর্ষণ নিয়ে প্রাক্তন সিবিআই কর্তা রণজিৎ সিনহার মন্তব্যও। ২০১৩ সালে তিনি বলেছিলেন, ‘ধর্ষণ ঠেকাতে না পারলে উপভোগ করুন’ এমন অসংবেদনশীল মন্তব্যের জন্য সিনহার বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় ওঠে সেই সময়।


[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন[email protected]এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]