নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে – অনশনে ঢাবি শিক্ষার্থীরা


সরস্বতী পূজার দিনে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির নির্বাচন না করে আগে বা পরে করার দাবিতে এবার আমরণ অনশনে বসেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী। বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) দুপুর ২টার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে এ অনশন কর্মসূচি পালন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। অনশনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা ‘পূজা করবো, নাকি ভোট দেব’; ‘সংবিধানের ৪১ নং অনুচ্ছেদের কি মূল্য নাই?’; ‘হিন্দু মুসলিম ভাই ভাই, নির্বাচনটা কি পূজার দিনেই তাই?’ ইত্যাদি লেখা সম্বলিত প্ল্যাকার্ড ধারণ করেন।

এসময় অনশন কারীরা বলেন, ‘এ অনশনের কারণে যদি কারও কোনও ক্ষতি হয় তবে তার দায় নির্বাচন কমিশনকে-ই নিতে হবে।’ আমরণ অনশনরত শিক্ষার্থী জগন্নাথ হল সংসদের ভিপি উৎপল বিশ্বাস বলেন, ‘একই দিনে পূজা আর ভোট হতে পারে না। আমরা চাই- এ নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করে আগে বা পরে করা হোক। আমাদের এ দাবি আদায় না করা পর্যন্ত আমরা অনশন চালিয়ে যাব।’

আমরণ অনশনে সংহতি প্রকাশ করে ডাকসু সদস্য মাহমুদুল হাসান ইসি সচিবকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ভুল করলে পুরো বাংলাদেশ ভুল করবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় যা করেছে অতীতে, সবটাই সঠিক ছিল। কোন নির্বাচনই পূজার দিনে হতে পারে না। এ নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করতেই হবে।’

জগন্নাথ হল সংসদের সাধারণ সম্পাদক (জিএস) কাজল দাস বলেন, ‘নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের জন্য আমরা নির্বাচন কমিশন বরাবর একটি স্মারকলিপি দিয়েছিলাম। গত কয়েকদিন ধরে আমরা ধারাবাহিক আন্দোলন করে আসছি। আমরা শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করে আসছি। অহিংস আন্দোল চালিয়ে যাওয়ার জন্য আমরা আজ আমরণ অনশনকে বেছে নিয়েছি।’


[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]