প্রেমিককে বিয়ে করতে না পেরে অধ্যাপিকার আত্মহত্যা


ভারতের বিদ্যাসাগর কলেজের এক অধ্যাপিকা বিয়ের জন্য প্রেমিককে রাজি করাতে না পেরে আত্মহত্যা করেছেন। এ ঘটনায় গ্রেফতারও করা হয়েছে প্রেমিক সুমনকে।নিহত অধ্যাপিকার নাম শুভ্রা মণ্ডল। তিনি বিদ্যাসাগর কলেজের জিওলোজি বিভাগে অধ্যাপনা করতেন।

আত্মহত্যার আগে প্রেমিককে হোয়াটসঅ্যাপে ছবি পাঠিয়ে শেষবারের মতো বিয়ের অনুরোধ করেন তিনি। বিয়ের জন্য প্রেমিককে রাজি না করাতে পেরে তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা পুলিশের।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, শুভ্রার সঙ্গে দীর্ঘদিনের সম্পর্ক ছিলো করিধ্যার বাসিন্দা সুমন চট্টপাধ্যায়ের। নানা অজুহাত দেখিয়ে বিয়ের কথা থেকে সরে আসতেন সুমন। এই দু’জনের মধ্যে সমস্যা চরমে ওঠে। রবিবার রাতে আত্মহত্যার আগেও দুজনের ঝগড়া হয় বলে শুভ্রার পরিবারের দাবি।

আত্মহত্যার রাতে খাওয়ার পর নিজের ঘরে চলে যান শুভ্রা। পরে দীর্ঘক্ষণ দরজা না খোলায় বাড়ির লোকেদের সন্দেহ হয়। দরজা খুলে শুভ্রাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। পাশেই রাখা ছিল তার মোবাইল। দেখা যায়, আত্মহত্যা করার আগেই সুমনকে শেষবারের মতো ছবি পাঠিয়ে বিয়ের করার জন্য অনুরোধ করেন। কিন্তু সুমন তাতেও রাজি না হওয়ায় চরম সিদ্ধান্ত নেন শুভ্রা।এই ঘটনার পর সিউড়ি থানায় খবর দেওয়া হলে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে। গ্রেফতারও করা হয়েছে সুমনকে।


[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন[email protected]এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]