ফরচুন বরিশালে তামিমের ব্যাটে রাজশাহী কুপোকাত


স্পোর্টস ডেস্ক : টুর্নামেন্টে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে জয়ের দেখা পেল ফরচুন বরিশাল। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের ষষ্ঠ ও নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে অধিনায়ক তামিম ইকবালের অনবদ্ধ ব্যাটিংয়ে মিনিস্টার রাজশাহীকে ৬ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে বরিশাল। একই সাথে দুই ম্যাচে জয়ের পর প্রথমবারের মতো হারের স্বাদ পেল নাজমুল হোসেন শান্তর রাজশাহী।

শনিবার (২৮ নভেম্বর) দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন ফরচুন বরিশালের অধিনায়ক তামিম ইকবাল। প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৩২ রান সংগ্রহ করে রাজশাহী। জবাবে তামিম ইকবালের অনবদ্ধ ব্যাটিং নৈপূণ্যে ১৯ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় বরিশাল।

ওপেনিংয়ে ব্যাট হাতে নেমে ৬১ বলে অপরাজিত ৭৭ রান করেন বরিশালের অধিনায়ক তামিম ইকবাল। এছাড়া দলের পক্ষে বল হাতে ৪ ওভারে ২১ রানে ৪ উইকেট নিয়ে রাজশাহীকে আটকে রাখতে অবদান রাখেন পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি।

ব্যাট করতে নেমে প্রথম পাওয়ার প্লেতে ৩৯ রান যোগ করেন রাজশাহীর দুই ওপেনার অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত ও আনিসুল ইসলাম ইমন। দু’জনই ২৪ রান করে আউট হন। দুই ওপেনারের পর রনি তালুকদার ও মোহাম্মদ আশরাফুলও ব্যর্থ হন। দু’জনই ৬ রান করে থামেন।

ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছেন উইকেটরক্ষক নুরুল হাসান সোহানও। রানের খাতাই খুলতে পারেননি তিনি। তাকে শিকার করেন পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি। ফলে ৬৩ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে দ্রুত গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কায় পড়ে রাজশাহী। তবে ষষ্ঠ উইকেটে ৬৫ রানের জুটি গড়ে দলকে বিপদমুক্ত করেন ফজলে মাহমুদ ও মেহেদী হাসান।

মারমুখী মেজাজে ছিলেন মেহেদী। ৩টি ছক্কায় বড় স্কোর গড়ার ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন তিনি। এর মাঝে ৩১ রান করা ফজলে আউট করে জুটি ভাঙেন বরিশালের পেসার তাসকিন। এরপর মেহেদিসহ টেল-এন্ডারদের আউট করে রাজশাহীর বড় স্কোরের পথ বন্ধ করে দেন রাব্বি। ২৩ বলে ৩৪ রান করেন মেহেদী। রাজশাহী করে ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৩২ রান। ৪ ওভারে ২১ রানে ৪ উইকেট নেন রাব্বি।

১৩৩ রানের লক্ষ্যে দ্বিতীয় ওভারেই উইকেট হারায় বরিশাল। ১ রান করে ফিরেন মেহেদী হাসান মিরাজ। দ্বিতীয় উইকেটে পারভেজ হোসেন ইমনকে নিয়ে ৬১ রান যোগ করে দলকে জয়ের পথে রাখেন তামিম।

ইমনকে ব্যক্তিগত ২৩ রানে বোল্ড করে ব্রেক-থ্রু এনে দেন রাজশাহীর মেহেদী। আর মিডল-অর্ডারের দুই ব্যাটসম্যান তৌহিদ হৃদয়কে ১৭ ও আফিফ হোসেনকে থামান মুকিদুল। সাথে ইরফান শুক্কুর ৩ রানে রান আউট হলে কিছুটা চাপে পড়ে বরিশাল।

শেষ ১১ বলে ৮ রান দরকার পড়ে বরিশালের। হাফ-সেঞ্চুরি তুলে অন্যপ্রান্তে বরিশালের আশা হিসেবে জ্বলে ছিলেন তামিম। ১৯তম ওভারের চতুর্থ বলে ছক্কা মেরে দলকে জয়ের কাছে পৌঁছে দেন তামিম। আর ওই ওভারের শেষ বলে চার মেরে বরিশালকে প্রথম জয় এনে দেন মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন।

১০টি চার ও ২টি ছক্কায় ৬১ বলে অপরাজিত ৭৭ রান করেন তামিম। ৪ রানে অপরাজিত থাকেন অঙ্কন। টুর্নামেন্টে নিজেদের দুই ম্যাচে ফরচুর বরিশালের এটি প্রথম জয়। অন্যদিকে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে প্রথম হারের স্বাদ পেল রাজশাহী।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
মিনিস্টার রাজশাহী : ১৩২/৯, ২০ ওভার (মেহেদী ৩৪, ফজলে ৩১, রাব্বি ৪/২১)
ফরচুন বরিশাল : ১৩৬/৫, ১৯ ওভার (তামিম ৭৭*, ইমন ২৩, মুকিদুল ২/২৭)।

ফল : ফরচুন বরিশাল ৫ উইকেটে জয়ী
ম্যাচ সেরা : তামিম ইকবাল (ফরচুন বরিশাল)।


[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]