বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ : অদম্য-দুর্বার করোনাযোদ্ধা

  • 618
    Shares

বরিশাল : একের পর এক সম্মুখ যোদ্ধা করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। শনিবারও বরিশালে একজন পুলিশ সদস্যের করোনা পজেটিভ এসেছে। তারপরও জনসেবায় অনিচ্ছা নেই পুলিশের। যে কয়জনই আক্রান্ত হচ্ছেন, তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করে বাকিরা নেমে পড়ছেন নিয়মিত ডিউটিতে। আর তাতেই মানুষের আস্থা অর্জণ করতে পেরেছে বরিশাল পুলিশ।

ইতিমধ্যে ৩০ এর কোঠায় পৌঁছেছে মহানগরে আক্রান্তের সংখ্যা। প্রতিদিন সবগুলো থানার, পুলিশের সবগুলো ইউনিটের সদস্যদের পরীক্ষা করানো হচ্ছে। কভিড-১৯ পজেটিভ আসার পরও মনোবল দৃঢ় রয়েছে পুলিশের বলে জানিয়েছেন শীর্ষ কর্মকর্তারা। কারন একসাথে নিজেকে রক্ষা এবং দেশের মানুষ রক্ষা: উভয়ই তাদের দায়িত্ব। বাংলাদেশ পুলিশ দায়িত্ব থেকে সরে যেতে শেখেনি, অভিমত কর্মকর্তাদের।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার (বিএমপি) মো. শাহাবুদ্দিন খান বলেন, করোনার সংক্রমণের পর থেকেই বিএমপি এলাকায় দিনরাত কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ।

করোনার পরিস্থিতিতে ঝুঁকি নিয়ে সেবা দিতে গিয়ে বেশ কয়েক সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তরা বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতাল এবং ঢাকার কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

তিনি মনে করেন, এটি একটি যুদ্ধ। মনোবল ঠিক রেখে, সতর্কভাবে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে এই যুদ্ধে জয়ী হতেই হবে।

জানা গেছে, বরিশালে অদম্য সাহস নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ। ঝুঁকি এবং নিরাপত্তাহীনততার মাঝেও ২৪ ঘন্টা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। করোনার প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকে পুলিশ নিজ উদ্যোগে গুরুত্বপূর্ণ সড়কে জীবাণুনাশক স্প্রে করা, মানবিক সহায়তা, কোয়ারেন্টিন নিশ্চত করা ও মৃত ব্যক্তির দাফন সম্পন্ন করে আসছে।

জানা গেছে, এসব করতে গিয়ে চলতি মাসের ১১ মে প্রথম করোনা শনাক্ত হয় উত্তর নগর পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (উত্তর) কার্যালয়ের এক গাড়ি চালকের।

এরপর তার সংস্পর্শে আসা পুলিশ সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের করোনা শনাক্তকরণ পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়। সেখানে ১৪ মে নমুনা পরীক্ষা শেষে নতুন করে নগর পুলিশের আরও আটজনের করোনাে শনাক্ত হয়।

এদের মধ্যে নগর সাব-ইন্সপেক্টর একজন ও সাতজন কনস্টেবল রয়েছেন। সোমবার (১৮ মে) নতুন করে চার পুলিশ সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। যার মধ্যে এএসআই ৩ জন এবং একজন কনস্টেবল। মঙ্গলবার (১৯ মে) নতুন করে নগর পুলিশ লাইন্সে কর্মরত ১২ জন পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হন। এদের মধ্যে একজন আর্মড পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর, চারজন নায়েক। বাকি ছয়জন কনস্টেবল।এরপর ধারাবািহিকভাবে ২০ মে, ২১ মে, ২২ মে, ২৩ মে এবং ২৪ মে প্রতিদিনই করোনা পজেটিভ পুলিশ হচ্ছে।


  • 618
    Shares

[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন[email protected]এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]