বাবাকে হত্যার অপরাধে ছেলের যাবজ্জীবন


নিজস্ব প্রতিবেদক : বাবাকে হত্যার অপরাধে ঘাতক ছেলেকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড সহ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

১৫ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার বরিশালের জেলা ও দায়রা জজ রফিকুল ইসলাম বিচারাধীন আদালত আসামীর উপস্থিতিতে এ দন্ড দেন।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী হেদায়াতুন্নবী জাকির জানায়, সাজাপ্রাপ্ত আসামীর নাম রেজাউল মোল্লা। তিনি আগৈলঝাড়া উপজেলার আস্কর কালিবাড়ি এলাকার নিহত সত্তার মোল্লার ছেলে। তার বিরুদ্ধে ২০১৭ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর আগৈলঝাড়া থানায় মামলা দায়ের করেন সত্তারের ২য় স্ত্রী রুমা বেগম। অভিযোগে তিনি বলেন, তার স্বামীর আগের স্ত্রীর রেজাউল সহ ৩ ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। সত্তার তাকে বিয়ে করার তাদের একটি পুত্র সন্তান হয়। ঘটনার সময় সেই ছেলের বয়স ছিল ৭ মাস। তাকে বিয়ে করার পর রেজাউল মেনে নিতে পারেনি। সে প্রায়ই তার বাবা ও সত মা কে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করত। তার বাবা মুখ বুঝে সহ্য করত। ২০১৭ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর রাত ১০ টার পরে রেজাউল গিয়ে তার বাবাকে ডাকতে থাকে। সত্তার দরজা খুলে সামনে এলেই বগী দা দিয়ে এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকে। রুমা ধরার চেষ্টা করলে তাকেও হত্যার জন্য উদ্ধত হয়। সে বাইরে গিয়ে ডাক চিতকার দিলে লোকজন ছুটে আসলে রেজাউল পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা সত্তারকে উদ্ধার করে আগৈলঝাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু বলে ঘোষণা করে। এধরণের অভিযোগ দেয়া হলে থানা পুলিশ তদন্তে সত্যতা পায়। থানার এস আই মোশাররফ হোসেন ২০১৮ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারী রেজাউলের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। রাষ্ট্রপক্ষ ১৬ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৫ জনের সাক্ষ্য প্রদান করেন। সাক্ষ্য প্রমানে দোষী সাব্যস্ত হলে আদালত রেজাউলকে ওই দণ্ড দেন।

মামলাটি রাষ্ট্রপক্ষে আইনী লড়াই করেন পাবলিক প্রসিকিউটর এ কে এম জাহাঙ্গীর এবং আসামী পক্ষে আইনজীবী ছিলেন এডভোকেট হুমায়ুন কবির মাসউদ। রায় শেষে আসামীকে সাজাভোগে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।


[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]