ভাঙছে নুসরাতের সংসার, ডিভোর্স নোটিশ দিলেন স্বামী

  • 4
    Shares

বিনোদন ডেস্ক : অনেক গুঞ্জন ছিলো তার দাম্পত্য জীবন নিয়ে। স্বামীকে রেখে পরকীয়ায় মজেছেন তিনি। তবে এসব নিয়ে মুখ খুলেননি কখনো কলকাতার নায়িকা ও তৃণমূলের সাংসদ নুসরাত জাহান।

অবশেষে জানা গেল, নিখিল জৈন’র সঙ্গে সংসারটা আর টিকছে না। নুসরাতের কাছে ডিভোর্স চেয়ে নোটিশ পাঠিয়েছেন নিখিল। গতকাল সোমবার রাতে এ খবর কলকাতার গণমাধ্যমে ফাঁস হয়।

সেখানে নিখিল জৈনের বরাতে বলা হয়েছে, এ ব্যাপারে তার যা বলার আছে, তা পরে বলবেন।

নায়িকা নুসরাতের সঙ্গে ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের সম্পর্ক গড়ে ওঠে ২০১৮ সালে। প্রেমের পর বেশ ঘটা করে নুসরাত বিয়ে করেছিলেন ২০১৯ সালের ১৯ জুন। সেই বিয়ে হয়েছিল সুদূর তুরস্কে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন দুই পরিবারের হাতে গোনা কিছু সদস্য ও বন্ধুবান্ধব।

এই বিয়ের পর নুসরাত-নিখিল কলকাতায় এসে আয়োজন করেছিলেন বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের। সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়সহ টালিউডের একঝাঁক তারকা এবং কলকাতার বিশিষ্টজনেরা।

কিন্তু দুই বছর না যেতেই সংসার ভাঙতে চলেছে। কেন? কী এমন ঘটল তাঁদের দাম্পত্য জীবনে?

এ নিয়ে টালিউডের ছবিপাড়ায় কান পাতলে শোনা যায় নুসরাতের সঙ্গে বনিবনা হচ্ছিল না নিখিল জৈনের। নুসরাতের ‘স্বাধীন জীবন’ মেনে নিতে পারছিলেন না নিখিল জৈন। নুসরাত সব সময় নিখিল জৈনের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করতেন। দুজনের সম্পর্কও ছিল গভীর।

তবে অন্য একটি পক্ষ বলছে স্বাধীনতার অপব্যবহার করেছেন নুসরাত। তিনি বন্ধুত্বের নাম করে টালিউডের নায়ক যশ দাশগুপ্তের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন। বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি নিখিল। তার আত্মসম্মানে লেগেছে।

বিশেষ করে নুসরাত-যশের আজমির শরিফে গিয়ে একসঙ্গে ছুটি কাটানোকে মেনে নিতে পারেননি নিখিল জৈন। এ নিয়ে অশান্তি দেখা দেয় তাদের দাম্পত্য জীবনে। অবশেষে নিখিল বিবাহবিচ্ছেদের নোটিশ দিয়েছেন।

এদিকে শোনা যাচ্ছে নুসরাতের সঙ্গে নিখিলের সম্পর্কে ভাটা পড়লেও এখনো নিখিলের সঙ্গে নুসরাতের ছোট বোন নুজহত জাহানের সম্পর্ক অটুট রয়েছে। তাদের বিয়ের সম্ভাবনাও দেখছেন অনেকে।


  • 4
    Shares

[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]