মিথ্যা ধর্ষণ মামলা করায় বরিশালে বাদীর ৫ বছরের কারাদন্ড

  • 15
    Shares

প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে মিথ্যা ধর্ষণ মামলা দিয়ে হয়রানি করার দায়ে বাদীকে ৫ বছরের কারাদন্ড প্রদান করেছেন আদালত। একই সাথে ৫ হাজার টাকা জরিমানা; অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদন্ড প্রদান করা হয়। আজ (৯ অক্টোবর) বুধবার বরিশাল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক আবু শামীম আজাদ এই রায় দেন।

দন্ডপ্রাপ্ত লাকি বেগম বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার চরাদী ইউনিয়নের বলইকাঠী গ্রামের রফিক সিকদারের মেয়ে।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বাকেরগঞ্জের বলইকাঠী গ্রামের আমিনুল ইসলামের সাথে একই এলাকার রফিক সিকদারের জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। তারই ধারাবাহিকতায় ২০১১ সালের ২ জুলাই রফিক সিকদার তার লোকজন নিয়ে আমিনুল সিকদারের জমি দখলের চেষ্টা চালায়।

জমি দখলে ব্যর্থ হয়ে ঘটনার দুই দিন পর রফিক সিকদার তার প্রতিপক্ষ আমিনুল সিকদারকে ফাঁসাতে তার মেয়ে লাকি বেগমকে বাদী করে আমিনুল সিকদারের বিরুদ্ধে বাকেরগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

পরবর্তীতে শারীরীক পরীক্ষায় লাকিকে ধর্ষণ করা হয়েছে এমন কোন আলামত না পেয়ে তদন্তকারী কর্মকর্তা (তৎকালীন) উপ-পরিদর্শক নজরুল ইসলাম ২০১৩ সালের ২৭ মার্চ আমিনুল সিকদারকে মামলা থেকে অব্যাহতি দিয়ে আদালতে চূড়ান্ত রিপোর্ট প্রদান করেন।

তদন্ত কর্মকর্তার প্রতিবেদন গ্রহণ করে অভিযুক্ত আমিনুল সিকদারকে মামলা থেকে খালাস প্রদান করেন আদালত। এ ঘটনায় ২০১৩ সালের ২১ মে আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে লাকি বেগমসহ ৪ জনকে আসামী করে আদালতে মামলা দায়ের করে।

আদালতের বিচারক ৫ জন স্বাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামী লাকি বেদমের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে এ রায় প্রদান করেন।


  • 15
    Shares

[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন[email protected]এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]