ম্যারাডোনাকে তার মতো ‘গোল’ দিয়েই উৎসর্গ করলেন মেসি


ম্যারাডোনাকে গোল উৎসর্গ করবেন মাথায় রেখেই যেন মাঠে নেমেছিলেন মেসি। মেসি গোলও করলেন, সেটা এমন এক গোল যা সাক্ষাৎ ম্যারাডোনার করা ২৭ বছর আগে গোলের একদম কার্বন কপি! পাশাপাশি দুই গোলের ভিডিও দেখলে পার্থক্য বের করাই দায়।

মেসি গোল করার পর ওই জার্সি খুলে সাবেক গুরুকে স্মরণ করা। কিংবদন্তি ম্যারাডোনাকে এর চেয়ে ভালো উৎসর্গ হতেই পারে না।

রোববার (২৯ নভেম্বর) দিনগত রাতে লা লিগায় ওসাসুনার বিপক্ষে ৪-০ গোলে জয়ী বার্সা। কিন্তু ম্যারাডোনার প্রতি উৎসর্গ করার গোলটি পেতে বার্সা অধিনায়ক মেসিকে ৭৩ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হয়। গোলটি মেসি যে গুরুকে উৎসর্গ করেন সেটা নিয়ে কোনো সন্দেহ ছিল না। মেসি গোল তো করলেনই তাও আবার তার গুরুর মতো অবিকল একই ভঙ্গিতে এবং গোলের উদযাপনের ভঙ্গিও ছিল ঠিক একই। এর চেয়ে বড় প্রাপ্তি আর কি হতে পারে।

খেলার ৭৩ মিনিটে ত্রিনকাওয়ের পাস থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সের বাইরে থেকে বাম পায়ের জোরালো শটে বল ডান কোণা দিয়ে জালে পাঠান মেসি। এটাই যেন ম্যাচের নিয়তিতে লেখা ছিল।

মেসি গোল করে তৃপ্তিভরা মুখে জার্সি খুলে ফেললেন। ভেতরে পরা ছিল ম্যারাডোনার নিওয়েলস ওল্ড বয়েজের ১০ নম্বর জার্সি। ম্যারাডোনার মতোই ওই জার্সি পরে দুই হাতের আঙুল ঠোঁটে ছুঁয়ে আকাশে পাড়ি দেওয়া গুরুর দিকে চুম্বন ছুড়ে দিলেন মেসি। এরপর দুই হাত আকাশের দিকে প্রসারিত করে স্মরণ করলেন নিজ দেশের ফুটবল মহানায়ককে।

১৯৯৩ সালে ঠিক এমনই এক গোল করেছিলেন ম্যারাডোনা। ওই বছরের ৭ অক্টোবর নিওয়েলস ওল্ড বয়েজের হয়ে ম্যারাডোনা প্রীতি ম্যাচে মাঠে এমেলিকের বিপক্ষে এই গোল করেন। আর ২০২০ সালের ২৯ নভেম্বর ফুটবল ঈশ্বর ম্যারাডোনা ও মেসিকে এক সুতোয় বাঁধলেন।

ছয় বছর বয়সে মেসি ম্যারাডোনার সেই গোলটি স্টেডিয়ামে বসে সরাসরি দেখেছিলেন। আর ২৭ বছর পর তার পুনরাবৃত্তিও করে দেখালেন মেসি। সেটাও গুরুকে উৎসর্গ করে!


[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]