মৎস্য ব্যবসায়ীর সাথে প্রতারণায় ৩ বছরের সাজা


নিজস্ব প্রতিবেদক : মৎস্য ব্যবসায়ীর সাথে প্রতারণা করার অপরাধে একজনকে ৩ বছর কারাদণ্ড সহ ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাস কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ১১ জুলাই বৃহস্পতিবার বরিশালের চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কবির উদ্দিন প্রামাণিক বিচারাধীন আদালত আসামীর অনুপস্থিতিতে এ রায় দেন। সাজাপ্রাপ্ত আসামীর নাম নিতাই চন্দ্র দাস।

তার পিতার নাম পল্লব চন্দ্র দাস।বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার কালিকাপুর এলাকায়। তার বিরুদ্ধে গতবছর ৮ মার্চ ওই আদালতে মামলা দায়ের করেন বরিশাল নগরীর পোর্টরোডের মৎস্য ব্যবসায়ী নাসির উদ্দীন সরদার। অভিযোগে তিনি বলেন, আসামী ব্যবসায়িক খাতিরে ৫ লাখ টাকা ধার নেয়। টাকা ফেরত চাইলে ২ লাখ ৯০ হাজার টাকা দিয়ে বাকি ২ লাখ ১০ হাজার টাকা পরবর্তীতে শোধ করার জন্য স্টাম্পে চুক্তি করে।টাকা ফেরত না দেয়ায় গতবছর ১৯ ফেব্রুয়ারি তাকে লিগ্যাল নোটিশ দেয়া হয়।

এতেও তিনি টাকা ফেরত না দিলে মামলা করা হয়। রাষ্ট্রপক্ষ ৪ জনের সাক্ষ্য প্রদানে সক্ষম হয়। সাক্ষী প্রমাণে দোষী সাব্যস্ত হলে আদালত নিতাইকে ওই সাজা দেন। রায়ের সময় পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা ও গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি করা হয় বলে আদালত সূত্র জানা


বরিশালট্রিবিউন.কম’র (www.barisaltribune.com) প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।