যাত্রীবাহী বিমান রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ল


আবারও নেপালের ত্রিভুবন বিমানবন্দর একটি যাত্রীবাহী বিমান রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ায় বন্ধ রয়েছে বিমানবন্দর। দুর্ঘটনা কবলিত প্লেনটিতে ৬৬ জন যাত্রী ছিল। আজ শুক্রবার (১২ জুলাই) দক্ষিণাঞ্চলীয় নেপাল থেকে কাঠমাণ্ডু পৌঁছে অবতরণের সময় রানওয়ে থেকে ১৫ মিটার দূরে ছিটকে পড়ে ইয়েতি এয়ারলাইন্সের প্লেনটি। এতে অন্তত দু’জন আহত হয়েছেন।

ত্রিভুবন বিমানবন্দরের মহা ব্যবস্থাপক রাজ কুমার ছেত্রী বার্তাসংস্থা এএফপি’কে বলেন, প্লেনটিকে সরিয়ে বিমানবন্দর আবার চালু করতে কাজ শুরু করেছে উদ্ধারকারী দল।

ভারী বৃষ্টিতে ওই এলাকা কর্দমাক্ত হয়ে যাওয়ায় উদ্ধার তৎপরতা বিঘ্নিত হচ্ছে বলেও জানান দেশটির একমাত্র আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের এ কর্মকর্তা।

আকাশপথ ভ্রমণের নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনায় বেশ বদনাম আছে নেপালের। ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের আকাশসীমায় নেপালি এয়ারলাইন্সের প্রবেশ নিষিদ্ধ। পাহাড়ি দেশটির বিমানবন্দরগুলোও অবতরণের জন্য যথেষ্ট ঝুঁকিপুর্ণ।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে একটি অভ্যন্তরীণ রুটে চলাচলকারী প্লেন ত্রিভুবন বিমানবন্দরের রানওয়েতে ছিটকে পড়ে। সেটি উদ্ধারে প্রায় ১১ ঘণ্টা লেগেছিল কর্তৃপক্ষের। এর মাসখানেক আগে সেখানেই ১৩৯ জন যাত্রী নিয়ে মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি প্লেন রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়েছিল।


বরিশালট্রিবিউন.কম’র (www.barisaltribune.com) প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।