যেসব দাবিতে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তালা লাগিয়েছে ছাত্রদল


বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছে বিভিন্ন দাবি জানিয়ে একটি চিঠি দিয়েছেন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতারা। সেই চিঠির বাস্তবায়ন না হওয়ায় মঙ্গলবার (১১ জুন) বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তালা লাগিয়েছে ছাত্রদলের নেতারা।

গত (২৮ মে) তারেক রহমান বরাবর দেওয়া ওই চিঠিতে তিনটি সুনির্দিষ্ট দাবি জানিয়েছে ছাত্রদল।

১. বয়সের সুনির্দিষ্ট সীমারেখা না রেখে ছাত্রদলের কমিটি গঠনের চিরাচরিত ঐতিহ্যকে অনুসরণ করে একটি ধারাবাহিক কমিটি আগামী ১ জানুয়ারি পর্যন্ত মেয়াদ দিয়ে গঠনের দাবি জানাচ্ছি।

২. পরবর্তীতে স্বল্পমেয়াদি এক বা একাধিক ধারাবাহিক কমিটি গঠন করা হলে সংগঠন শক্তিশালী হবে বলে আমরা মনে করি।

৩. আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি বর্তমান ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদ, বিশ্ববিদ্যালয়গুলো, মহানগর ও কলেজগুলোর সমন্বয়ে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটি গঠন করলে সংগঠন আরও শক্তিশালী হবে।

চিঠিতে আরও বলা হয়, আমরা ছাত্রদলের প্রত্যেকটি নেতাকর্মী গত একযুগ ধরে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে, স্বৈরাচারী হাসিনা বিরোধী আন্দোলন, দেশমাতা খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনসহ যেকোনো সময়ে আপনি (তারেক রহমান) যে নির্দেশনা দিয়েছেন তা পালন করার চেষ্টা করেছি। অসংখ্য নেতাকর্মী, গুম, হত্যা, ক্রসফায়ার, হাজার হাজার কর্মীর কারাবরণ ও কোনো রক্তচক্ষু আমাদের দমিয়ে রাখতে পারেনি।

দলের দুঃসময় অনুধাবন করে ২ বছরের কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে ৫ বছর চললেও আমরা সংগঠনের স্বার্থে শৃঙ্খলা বজায় রেখে বর্তমান কেন্দ্রীয় সংসদের অধীনে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালিত করে আসছি। সম্প্রতি আমাদের নতুন কেন্দ্রীয় কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে নানামুখী আলোচনা আমাদের সবাইকে উদ্বিগ্ন করেছে। আমরা পরোক্ষভাবে জানতে পেরেছি যে, দলীয় হাইকমান্ড নিয়মিত ছাত্রদের দিয়ে ছাত্রদলের শীর্ষ নেতৃত্ব নির্ধারণ করতে চায়। আমরা বিনয়ের সঙ্গে বলতে চাই আপনার যেকোনো সিদ্ধান্তই আমাদের শিরোধার্য। কিন্তু চলমান বাস্তবতায় এই মুহূর্তে এ ধরনের সিদ্ধান্ত দলের জন্য আত্মঘাতি হতে পারে। যা দীর্ঘমেয়াদে দলের জন্য ক্ষতির কারণও হতে পারে।

সর্বশেষে ছাত্রদল নেতারা বলেন, আমাদের সর্বোচ্চ অভিভাবক হিসেবে আপনার কাছে আবেদন, অনেক কিছু হারিয়েও আমরা আমাদের স্বাভাবিক রাজনৈতিক জীবনের নিশ্চয়তা চাই। চলমান সংকট নিরসনে আপনিই আমাদের ভরসারস্থল ও আশা আকাঙ্ক্ষার মূর্তপ্রতীক। দল ও দেশের প্রয়োজনে এবং বন্দি মায়ের (খালেদা জিয়া) মুক্তির জন্য যেকোনো ত্যাগ স্বীকারে আমরা সর্বদা প্রস্তুত।

বিনীত ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদ, বিশ্ববিদ্যালয়, মহানগর ও মহানগরীতে অবস্থিত কেন্দ্রের আওতাধীন সব কলেজ ইউনিটের নেতাকর্মী।


বরিশালট্রিবিউন.কম’র (www.barisaltribune.com) প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।