শয্যাসঙ্গী না হওয়ায় সিনেমা থেকে বাদ


ভারতীয় অভিনেত্রী অদিতি রাও হায়দারী। ২০০৬ সালের মালয়ালাম ভাষার চলচ্চিত্র ‘প্রজাপতি’র মাধ্যমে শুরু হয় তার চলচ্চিত্র জীবন। সম্প্রতি ‘ইন্ডিয়া টুডে’র বিশেষ অনুষ্ঠানে তিনি জানালেন কু প্রস্তাবে রাজিয়া না হওয়ায় সিনেমা থেকে বাদ যাওয়ার তিক্ত অভিজ্ঞতা।

অথচ অদিতি বিশ্বাসই করতে পারেননি তার জীবনে এমন অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে যাবে। কখনও এমন ঘটনাও ঘটবে। যে ঘটনায় লজ্জায়, দুঃখে, ঘেন্নায় কেঁদেছিলেন তিনি। অদিতি জানান, কুপ্রস্তাবে রাজি হননি বলে একটি সিনেমায় কাজ দেওয়া হয়নি তাকে।

যদিও অন্যদের মতো তার অভিজ্ঞতা এতোটা ভয়াবহ নয় বলেও জানান তিনি। তবে একটি ছবিতে কাজ চাইতে গেলে অদিতিকে বলা হয়েছিল, কাজ পেতে হলে তাকে বিছানায় যেতে হবে। সে কথা রাখেননি, তাই কাজও তাকে দেয়া হয়নি।

অদিতি জানান, বেশ রক্ষণশীল পরিবারের মেয়ে হওয়ায় প্রথম এসব সম্পর্কে তার ধারণা খুবই কম ছিল। তাকে বলা হয়েছিল যে, যৌনতায় রাজি হলেই তাকে কাজ দেয়া হবে। তবে তিনি মুখে উপর ‘না’ বলে দেন। আর স্বাভাবিকভাবই কাজটা হারান তিনি। এই ঘটনার পর আট মাস তাকে বসে থাকতে হয়েছিল। এরপর আবার কাজে ফেরেন এই অভিনেত্রী।

অদিতি ২০১১ সালে মুক্তি পাওয়া হিন্দি সিনেমা ‘ইয়ে সালি যিন্দেগি’তে অভিনয় করে প্রশংসিত হন এবং ‘স্ক্রিন এ্যাওয়ার্ড ফর বেস্ট সাপোর্টইং এ্যাক্ট্রেস’ জেতেন। ২০১১ সালেই রণবীর কাপুর এর সঙ্গে অভিনীত চলচ্চিত্র ‘রকস্টার’ মুক্তি পায়।

২০১৮ সালের চলচ্চিত্র ‘পদ্মাবত’ তে তিনি মেহেরুন্নেসা চরিত্রে অভিনয় করেন। চলতি বছর সমালোচকদের বিচারে দাদা সাহেব ফালকের সেরা পারফরম্যান্স পুরস্কার জয় করেন।