সর্বোচ্চ আদালতে পারভেজ মুশাররফ


পাকিস্তানের সাবেক সামরিক শাসক অবসরপ্রাপ্ত জেনারেলে পারভেজ মুশাররফ রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় মৃত্যুদণ্ডের সাজার বিরুদ্ধে দেশটির সর্বোচ্চ আদালতে আবেদন করেছেন। বৃহস্পতিবার সংবিধানের ৬ ধারার অধীনে তার বিরুদ্ধে দেওয়া বিশেষ আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে এই আবেদন করেন। পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম ডন এখবর জানিয়েছে।

৯০ পৃষ্ঠার ফৌজদারি আবেদনে সাবেক সামরিক শাসক বিশেষ আদালতের রায় বাতিলের আহ্বান জানিয়েছেন। লাহোর হাইকোট এই বিশেষ আদালতকে অসাংবিধানিক উল্লেখ করার একদিনের মাথায় এই আপিল করলেন তিনি। ২০১৯ সালের ১৭ ডিসেম্বর বিচারকদের দ্বিধাবিভক্ত রায়ে একটি বিশেষ আদালত পারভেজ মুশাররফকে মৃত্যুদণ্ডের সাজা দেয়। পকিস্তানের ইতিহাসে প্রথমবারের কোনও সামরিক শাসককে রাষ্ট্রদ্রোহী হিসেবে ঘোষণা করে মৃত্যুদণ্ডের সাজা দেওয়া হয়।

আপিলে সাবেক সেনাপ্রধান দাবি করেছেন, সংবিধান লঙ্ঘণ করে ও ১৮৯৮ সালে দণ্ডবিধি অনুসারে যেহেতু এই বিচার হয়েছে তাই বিশেষ আদালতের রায় গ্রহণযোগ্য না। আবেদনে মুশাররফ আরও উল্লেখ করেছেন, আদালত উপযুক্ত যে ব্যবস্থা নেবেন তা তিনি মেনে নেবেন।

১৯৯৯ সালে তৎকালীন নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতাচ্যুত করেন মুশাররফ। ২০১৪ সালের মার্চে পুনরায় ক্ষমতায় আসে তার বিরুদ্ধে মামলা করেন নওয়াজ। মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে শাসনামল দীর্ঘ করতে ২০১৭ সালে সংবিধান স্থগিত করেন তিনি। অভিশংসন এড়াতে ২০০৮ সালে তিনি পদত্যাগ করেছিলেন। ২০১৬ সালে তাকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়। বর্তমানে তিনি দুবাইতে অবস্থান করছেন।


[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]