হার্ট অ‌্যাটাক করেছেন হাসানাত আবদুল্লাহ, আজ এনজিওগ্রাম

  • 101
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক।। গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ কমিটির প্রধান ও সংসদ সদস্য আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ’র হার্ট অ‌্যাটাক হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

আজ বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) এনজিওগ্রাম করার পর তার বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর সন্ধ‌্যায় তার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা জানাতে গিয়ে চিকিৎসকরা একথা বলেছেন।

আবুল হাসানাতের ব‌্যক্তিগত সহকারী খায়রুল বাশার জানান, তার করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এসেছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তার হার্ট অ‌্যাটাক হয়েছে। বৃহস্পতিবার এনজিওগ্রাম করা হবে। এরপর সিদ্ধান্ত জানাবেন চিকিৎসকরা।

মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাত সোয়া ৮টার দিকে সংসদ ভবনের বাসভবনে অসুস্থ হয়ে পড়লে ৯টার দিকে মন্ত্রীকে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তার সুস্থতা কামনায় দলের পক্ষ থেকে দোয়া চাওয়া হয়েছে।

হাসানাত আবদুল্লাহ ১৯৪৪ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা প্রয়াত আবদুর রব সেরনিয়াবাত মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন এবং মুজিবনগরে অস্থায়ী বাংলাদেশ সরকার পরিচালনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন।

১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মন্ত্রিসভার সদস্য হিসেবে তিনি ভূমি প্রশাসন, ভূমি সংস্কার এবং বন্যা নিয়ন্ত্রণ, পানি সম্পদ ও বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেন। আবদুর রব সেরনিয়াবাতকে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে হত্যা করেছিল।

সেদিন তার মা, সহোদর এবং জ্যেষ্ঠ সন্তানকেও হত্যা করেছিলো ঘাতকরা। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফুফাতো ভাই এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাগ্নে। হাসানাত আবদুল্লাহ তিন ছেলে ও এক মেয়ের জনক। তার ছেলে বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ বর্তমানে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শের অনুসারী আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় বৃহত্তর বরিশাল অঞ্চলে মুজিব বাহিনীর প্রধান ছিলেন। ১৯৭৩ সালে বরিশালে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি অধুনালুপ্ত বরিশাল পৌরসভারও চেয়ারম্যান ছিলেন। ১৯৯১ ও ১৯৯৬ সালে বরিশাল-১ (গৌরনদী-আগৈলঝাড়া) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০০ সালের ২৬ জুন তিনি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য হন। হাসনাত আবদুল্লাহ ১৯৯৬ থেকে ২০০০ পর্যন্ত জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ ছিলেন। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনে হাসনাত আবদুল্লাহ তৃতীয়ও বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০১৮ সালের ১৮ জানুয়ারি তিনি পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ কমিটির আহ্বায়ক (মন্ত্রী পদমর্যাদা) মনোনীত হন।

২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বরে নির্বাচনে বরিশাল-১ (গৌরনদী-আগৈলঝাড়া) আসন থেকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে চতুর্থবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ।


  • 101
    Shares

[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]