হাসিবুল হাসান শারদ-এর গুচ্ছ কবিতা


মা

শূন্য ঘরে যেই ঢুকেছি, উঠছি ডেকে মাকে
পড়ল মনে মা যে তখন কবর-ঘরে থাকে
শূন্য সে-ঘর আগের মতোই সকল কিছু তার
মা শুধু নেই চলে গেছেন জীবন-নদীর পার

মায়ের পানের কৌটো আছে, আছে তোষক-কাঁথা
তেমনি আছে বালিশটি আর রাখবে না তার মাথা
তেমনি আছে কাপড়গুলো, তেমনি জায়নামাজ
অক্তগুলো যায় বয়ে ঠিক, যায় না সময় আজ।

মা গো তুমি আর কি কভু বলবে বাবু ঘুমো,
ছোট্ট আমায় কোলে নিয়ে আর কি দিবে চুমো,
আর কখনো আসবে কাছে করবে আমায় আদর,
আর কোনো দিন পাব কি মা, উষ্ণ তোমার চাদর?

এক জনমের সকল মায়া, সকল স্নেহের টান
হয়ে গেল এক নিমেষেই সকল অবসান?
মরণ যেদিন আসবে মা গো আমার প্রাণের কাছে
বলব তারে, যাও নিয়ে যাও যেইখানে মা আছে।

পা ও পায়ের ছবি

একটি শিশু বয়স দশেক দুইটি পা তার কাটা
আর কোনো দিন সম্ভব না নিজ পায়ে তার হাঁটা।

মাটির ওপর তার চলাচল, ভিক্ষা করে খায়,
ধুলোয় ধুলোয় গড়াগড়ি- দিন কেটে তার যায়।

একদিন সে গাছের গোড়ায় দুপুর বেলায় একা,
বলছি আমি যে দৃশ্যটা লাগল আমার দেখা।

সাধ দুটি পা থাকলে সেও হাঁটত সবার মতো,
চক দিয়ে সে হাঁটুর নিচে দুই পা আঁকায় রত।

যেইখানে তার গেছে কাটা ছোট্ট পা দুইখানি
শিল্প কি আর মুছতে পারে সেই বেদনার গ্লানি?

এক পাহাড়িনী

আজ বলব যাহার কথা সে এক পাহাড়িনী
আমার শহর থেকে সুদূর, দেখেছি এক দিনই
খাগড়াছড়ির জামতলিতে পাহাড় ভরা দেশে
গিয়েছিলাম আমরা ক’জন সরকারি আদেশে
সদ্য ট্রেনিং শেষ করে যাই লিকলিকে শরীরে
তখন দেখি পাহাড়বাসী চাকমা সে পরীরে।

ঘরটা তাদের অনেক উঁচোয়, হাঁটতে অনেক হয়
থাকলে ভিজে সেখান থেকে পড়ে যাবার ভয়
গ্রীষ্ম তখন বেজায় গরম কাঁঠালগুলো পাকা
তার মধ্যে আদেশ ছিল রোজাগুলো থাকা
ক্যাম্প দর্শন করতে যেতাম গোশলটুকু করে
কম্ব্যাট, বুট, ঘড়ি এবং রোদচশমা পরে
একদিন এক ক্যাম্পে গিয়ে দেখি কুটির তাদের
পাহাড়চূড়ায় ঘরটি ঘেঁষে মুখটি যেন চাঁদের।

খুব লুকিয়ে দেখছিল সে ক্যাম্পে হঠাৎ কারা
করবে নাকি হঠাৎ তাদের অস্ত্র হাতে তাড়া?
আবডাল হয়, আর মনে হয় গ্রহণ লাগে তাতে
তার মধ্যেই আমার সাথে চোখের খেলায় মাতে
আমার দিকে একটু দেখে একটু মধুর হাসে
সেই হাসিতে কেমন লাগে বুঝতে পারে না সে।

বুঝতে শুধু পারল মেয়ে করব না তার ক্ষতি,
পাহাড় দখল করার মতো নেই কোনো দুর্মতি।


বরিশালট্রিবিউন.কম’র (www.barisaltribune.com) প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।