হুট করে এক ময়ূরের আগমন!


বিনোদন ডেস্ক ॥
পাঁচ তারকা হোটেলের হলরুমটি যেন এক টুকরো সবুজ অরণ্য! চারদিক সবুজে ভরপুর। দেখেই চোখের শান্তি লাগছে!

ঘড়ির কাটায় ১০টা হতে চললো।
আমন্ত্রিত অতিথিরা অপেক্ষায় তাকিয়ে। হুট করে এক ময়ূরের আগমন! সবাই তাকে দেখে বেশ অবাক, আরে এ তো পরীমনি।

ডানাকাটা পরীর গায়ে ঝুলছিল ময়ূরের পালক। সবুজ গাউনে নিজেকে ময়ূর সাজিয়ে উপস্থিত সবাইকে চমকে দিয়েছেন লাস্যময়ী এই চিত্রনায়িকা। তাকে দেখে একেবারে ময়ূরই মনে হচ্ছিল!

প্রতিবারের মতো এবারও রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে নিজের জন্মদিন অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন পরী। শনিবার (২৪ অক্টোবর) সন্ধ্যায় আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানান মিডিয়ার ঘনিষ্ঠ বন্ধু ও সহকর্মীদের।

প্রত্যেক জন্মদিনে পরীমনি আলাদা একটি রঙ বেছে নেন অনুষ্ঠান রাঙাতে। এবার তার থিম ছিল সবুজ। বলরুম, স্টেজ কিংবা আমন্ত্রিত অতিথিরাও এসেছেন সবুজ গায়ে জড়িয়ে। পরী নিজেও পরেছেন সবুজ রঙয়ের বিশেষ গাউন।

এবার সবুজ কেন? উত্তরে পরীমনি বলেন, প্রতিবছর আমার জন্মদিনের অনুষ্ঠানে একটি আলাদা রঙ নির্ধারণ করে থাকি। এ বছরের বেশিটা সময় ঘরবন্দি কেটেছে। প্রকৃতির রঙ সবুজ, আমার কাছে মনে হয়েছে এই রঙটি মনে একটা অন্যরকম প্রশান্তি দেয়। তাই এবার সবুজ বেছে নিয়েছি।

‘আমার প্রিয় সব মানুষ জন্মদিনে আসেন। আমার বেশ ভালো লাগে। সবাইকে নিয়ে খুব আনন্দে দিনটি উদযাপন করি। এবারও খুব ভালো লাগছে। করোনা ভাইরাসের মধ্যে ঘরবন্দি থেকে মন যতটা খারাপ হয়েছিল, আজ তার চেয়েও বেশি আনন্দিত আমি’, যোগ করেন ‘স্বপ্নজাল’খ্যাত অভিনেত্রী।

গত বছর পরীমনিকে জন্মদিনে প্রজাপতি সাজতে দেখা যায়। এবার ময়ূর। এর ব্যাখ্যায় তারকা বললেন, ‘ময়ূর কত সুন্দর! আমার অসম্ভব পছন্দের। মাঝেমধ্যে মনে হয় যদি ময়ূর হয়ে যেতে পারতাম! তাই আজ নিজেকে ময়ূর সাজালাম। ’

শুধু নিজেই ময়ূর সাজেনি পরী। অনুষ্ঠানস্থলের চারদিকও ছিল ময়ূরের পালকে ঢাকা।


[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]