১৯ বছরেই বিশ্বসুন্দরী, সুস্মিতার জন্মদিন আজ


সুস্মিতা সেন। বাঙালি সুন্দরী-অভিনেত্রী। বাজিমাত করেছেন ভারতীয় শোবিজে। আন্তর্জাতিক আঙ্গিনাতেও তার সাফল্যের আলো ছড়িয়েছে। ‘মিস ইউনিভার্স’-এর খেতাব জয় করার পরের বছর বিখ্যাত জেমস বন্ড সিরিজের ‘গোল্ডেন আই’ সিনেমায় অভিনয়ের প্রস্তাব পেয়েছিলেন। কিন্তু কোনো এক অজানা কারণে সেই সিনেমায় অভিনয় করেননি তিনি।

সুন্দরী, গুণি অভিনেত্রী, আত্মবিশ্বাসী, আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্বের সুস্মিতা সেনের আজ জন্মদিন। ১৯৭৫ সালের ১৯ নভেম্বর ভারতের হায়দারাবাদের অন্ধ্র প্রদেশে এক বাঙালি পরিবারে তার জন্ম। তার বাবা সুবীর সেন ভারতীয় বিমানবাহিনীর প্রাক্তন উইং কমান্ডার এবং মা সুভ্রা সেন অলঙ্কার ডিজাইনার এবং দুবাইভিত্তিক একটি দোকানের মালিক। সুস্মিতা নতুন দিল্লীতে বিমান বাহিনীর গোল্ডেন জুবিলী ইন্সিটিউট দিয়ে শিক্ষা জীবনে পা রাখেন।

১৫ বছর বয়স থেকেই শোবিজের সঙ্গে তার পথচলা। প্রথমদিকে র্যাম্পে হেঁটেছেন, অংশ নিতেন নানা রকম ফটোশুটে। ১৯৯৪ সালে এসে তার ভাগ্যটা বদলে গেল। মিস ইউনিভার্স নির্বাচিত হয়ে বলিউডে শুরু হলো সুস্মিতার মজবুত পদচারণা।

১৯৯৬ সালে ‘দাস্তাক’ সিনেমায় অভিনয়ের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্র জীবন শুরু করেন সুস্মিতা সেন। বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ে ছবিটি। নতুন করে লেগে রইলেন তিনি সাফল্যের আশায়। সাফল্য এলো ‘বিবি নাম্বার ওয়ান’-এ। ১৯৯৯ সালে মুক্তি পাওয়া এই সিনেমা দিয়ে ফিল্মফেয়ার সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রীর পুরস্কার ঘরে তোলেন সুস্মিতা। একই বছর মুক্তি পায় তার অভিনীত ‘সির্ফ তুম’। এই সিনেমার জন্যও তিনি একই পুরস্কার পান।

সুস্মিতা সেনের নামটি সিঙ্গেল মাদার হিসেবে এই উপমহাদেশে আইকনিক। তিনি ২০০০ সালে রেনি নামের এক মেয়ে শিশু দত্তক নিয়ে ইতিহাস তৈরি করেন। মাত্র ২৫ বছর বয়সে অবিবাহিত নারী হিসেবে শিশু দত্তক নেওয়ায় তার অভিভাবকত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলে সমাজপতিরা। কিন্তু মুম্বাই আদালত সব প্রশ্ন থামিয়ে সুস্মিতার পক্ষে রায় দেয়। যুগান্তকারী সেই রায়ের পর ভারতে সিঙ্গেল মাদার হওয়ার চর্চাটা বেড়েছে মর্যাদার সঙ্গে।

অবশেষে ২০১০ সালের ১৩ জানুয়ারি আলিশা নামে তিন মাস বয়সী আরও মেয়ে শিশু দত্তক নেন সুস্মিতা। বর্তমানে রেনি, আলিশার সঙ্গে বেশ দারুণ কাটছে তার দিনগুলো। সঙ্গে আছেন প্রেমিক রোহমান শল।

বর্তমানে সিনেমায় খুব একটা নিয়মিত নন সুস্মিতা। তবে সম্প্রতি তিনি ওয়েব সিরিজে কাজ করছেন। ওয়েব সিরিজ ‘আরিয়া’র মধ্য দিয়ে রূপালি পর্দায় ফেরেন তিনি।


[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]