সংবাদ শিরোনাম :
মার্কিন রাষ্ট্রদূতের গাড়িতে হামলার দায়ে নানকের ভিসা বাতিল?   ⏺️  কমিশনার-ডিসিদের রিটার্নিং কর্মকর্তা নিয়োগ কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট   ⏺️  রাঙ্গাবালীতে সংঘর্ষের ঘটনায় ৪৫ জন আসামি, গ্রেফতার ২০   ⏺️  ভোটাররা যদি কেন্দ্রে যেতে না পারেন সেজন্য সরকার দায়ী থাকবে   ⏺️  নির্বাচন কমিশন ব্যথিত-বিব্রত: সিইসি   ⏺️  মোহাম্মদ জসিম-এর পাঁচটি কবিতা   ⏺️  নিখোঁজের তিন দিন পর মেহেন্দিগঞ্জের ওষুধ ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার   ⏺️  নোয়াখালীতে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে খুন   ⏺️  চলচ্চিত্রকার খিজির হায়াৎ হত্যার পরিকল্পনাকারী দুই জঙ্গি রিমান্ডে   ⏺️  তুরস্কে পুলিশ বিভাগে গোলাগুলি, রাজ্য পুলিশপ্রধান নিহত

র‍ুস্তুম ফরাজীকে মহাজোটের প্রার্থী মানবে না আ.লীগ!


পিরোজপুর ব্যুরো  || বরিশালট্রিবিউন.কম ||   প্রকাশিত:  নভেম্বর ২১, ২০১৮


একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পিরোজপুর-৩ আসনে মহাজোট থেকে যদি ডাঃ র‍ুস্তুম আলী ফরাজীকে মনোনয়ন দেয়া হলে তা মানতে মঠবাড়িয়ার আওয়ামীলীগ নারাজী। তাদের দাবী প্রার্থী দিতে হবে আওয়ামীলীগ থেকে। আওয়ামীলীগের কয়েক নেতার সাথে কথা বলে এ তথ্য জানাগেছে। তাদের বক্তব্য র‍ুস্তুম আলী ফরাজী তার লোকজন দিয়ে আওয়ামীলীগ যুবলীগ ছাত্রলীগ কর্মীদের নামে মামলা দিয়ে হয়রানী করেছে। মঠবাড়িয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও মঠবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি জাহিদ উদ্দিন পলাশ সাংবাদিকদের বলেন, ২০০১ এর নির্বাচনে ডাঃ র‍ুস্তুম আলী ফরাজী বিএনপি জামাত জোট থেকে নির্বাচন করে বিজয়ী হন। এরপর তিনি আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের নামে মামলা হামলা দিয়ে হয়রানী করেছে।

 

আবার ২০১৪ সালের নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পরও আওয়ামী লীগ নেতা কর্মীদের নামে মামলা দিয়ে হয়রানী করেছে। তিনি আওয়ামীলীগ দলীয় কর্মীদের সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত করেছেন। এলাকার উন্নয়ন দৃশ্যমান দেখাতে পারেনাই। একারনে সরকারের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে। ডাঃ র‍ুস্তুম আলী ফরাজীকে মহাজোটের প্রার্থী দেয়া হলে আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীরা মানবেন না বলে জানান জাহিদ উদ্দিন পলাশ। দলে কোন্দল আছে এ বিষয়টি স্বীকার করে জাহিদ উদ্দিন পলাশ বলেন নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে কোন কোন্দল থাকবেনা। নৌকা প্রতীক যাকে দেয়া হবে আমরা তার পক্ষে কাজ করবো।

 

ডাঃ র‍ুস্তুম আলী ফরাজী যদি নৌকা প্রতীক নিয়ে আসেন তাহলে কি করবেন ? এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ফরাজীর নৌকা প্রতীক নিয়ে আসার কোন সুযোগ নাই কারন তিনি এখন জাতীয় পার্টি করেন। মঠবাড়িয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও উপজেলা ছাত্রলীগের(তৎকালীন থানা ছাত্রলীগ। সাল ১৯৬৫) প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক ও মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে শরনখোলা থানার কমান্ডিং অফিসার মজিবুল হক খান মজনু সাংবাদিকদের বলেন, ডাঃ র‍ুস্তুম আলী ফরাজী মবাড়িয়ার তিন বারের সংসদ সদস্য। এ সময়ে তার মুখ থেকে জয়বাংলা শ্লোগান শোনা যায় নাই। মজিবুল হক খান মজনুর ভাষ্য ২০১৪ সালের নির্বাচনে উপজেলা আওয়ামীগের একটি বড় অংশ নৌকাকে হারিয়ে ফরাজীকে বিজয়ী করেছে।

 

তিনি বলেন জয়বাংলা বলবেনা এমন প্রার্থী দেয়া হবে আমরা তাকে মেনে নেব। এটা হতে পারেনা। মঠবাড়িয়ার শাপলেজা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও শাপলেজা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মিরাজ মিয়া বলেন সাংবাদিকদের ডাঃ র‍ুস্তুম আলী ফরাজী আওয়ামীলীগ যুবলীগ ও ছাত্রলীগের ৫শ নেতা কর্মীর নামে মামলা দিয়েছেন তার অনুগতদের দিয়ে। এরপর তিনি বলেন শুধু শাপলেজা ইউনিয়ন যুবলীগ ছাত্রলীগের নামে ১১টি মামলা দেয়া হয়েছে। যা আমাদের মোকাবিলা করতে হয়েছে। মিরাজ মিয়া বলেন যাদের নামে র‍ুস্তুম আলী ফরাজী মামলা দিয়েছেন তারা কি তার পক্ষে কাজ করবে? ডাঃ র‍ুস্তুম আলী ফরাজীকে গেল সংসদ নির্বাচনে আমরা শাপলেজা ইউনিয়ন থেকে৪ হাজার৭শভোট দিয়েছি।

 

আর নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ডাঃ আনোয়ার হোসেন পেয়েছেন১৭শত ভোট। ডাঃ র‍ুস্তুম আলী ফরাজী প্রকাশ্যে সভায় ছাত্রলীগ যুবলীগ কে চোর ডাকাত বলেছেন এ রকম অভিযোগ শাপলেজা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মিরাজ মিয়ার। ডাক্তার র‍ুস্তুম আলী ফরাজীর বিষয়ে মন্তব্য জানতে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আজিজুল হক সেলিম মাতুব্বর এর মোবাইল ফোনে শনিবার থেকে এ পর্যন্ত একাধিক বার ফোন দেয়া হলেও তিনি ফোন ধরেননি। মঠবাড়িয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আরিফ-উল- হক সাংবাদিকদের জানান, ডাঃ র‍ুস্তুম আলী ফরাজী গেল জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের একাংশের উপর ভর করে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

 

এরপর তিনি সবচেয়ে বেশী জুলুম নির্যাতন চালিয়েছে আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীদের উপর। বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটিতে আমাদের যে দলীয় সদস্য ছিল তা তিনি সব বাদ দিয়েছেন এবং বিভিন্ন হয়রানী মুলক মামলা দিয়েছেন। আমরা চাই এ আসনে আওয়ামীলীগ থেকে প্রার্থী দেয়া হোক। ২০১৪ এর নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ডাঃ র‍ুস্তুম আলী ফরাজীর সাথে হেরেছেন পিরোজপুর জেলা আওয়ামীলীগের বর্তমান সহ সভাপতি ডাঃ আনোয়ার হোসেন। আলাপকালে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, গতবারতো আমাকে দলের লোকজনে হারিয়েছে। আওয়ামীলীগের কোন্দলে ফরাজী সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছে। আপনি খুজে দেখেন ফরাজীর ৫ -৬ হাজার ভোট আছে কিনা।

 

ডাঃ র‍ুস্তুম আলী ফরাজী গেল বছরের শেষের দিকে ঢাকায় এরশাদের উপস্থিতিতে জাতীয় পার্টিতে যোগদেন। এরপর এরশাদ ফেব্রুয়ারীতে মঠবাড়িয়ায় এক জনসভায় র‍ুস্তুম আলী ফরাজীকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে পরিচয় করিয়েদেন। বর্তমানে তিনি জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি। আলাপকালে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি ডাঃ র‍ুস্তুম আলী ফরাজী বলেন, আমি কোন অনিয়ম-দুর্নীতি করিনা এ কারনে মানুষ আমাকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবে। মানুষ আমাকে ভাল বেসে ভোটদিয়ে বিজয়ী করেছে। কাউকে আমি হয়রানী করেছি একথা ঠিক না। এরপর তিনি বলেন, আমি জাতীয় পার্টিতে যোগদানের পর মঠবাড়িয়ায় ফেরার পথে মঠবাড়িয়ার শাফা বন্দর এলাকায় আমার গাড়ী বহরে হামলা করে উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মোঃ আশরাফুর রহমানের লোকজন।

 

এতে আমার কয়েকজন কর্মী আহত হয়। পিরোজপুরের সবচেয়ে বড় উপজেলা মঠবাড়িয়া। একটি পৌরসভা ও ১১টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত এ উপজেলা। যেটির সংসদীয় আসন হল পিরোজপুর-৩। এ আসনে ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৮৯ হাজার ৫শত ৮৬ জন।