টিকা নেওয়ার শীর্ষে ঢাকা, পিছিয়ে বরিশাল বিভাগ

  • 9
    Shares

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সারাদেশে এ পর্যন্ত ৫৫ লাখ ৩৯ হাজার ৪৯৪ মানুষ টিকা নিয়েছেন। এরমধ্যে ৩৪ লাখ ৩৫ হাজার ৭০১ জন পুরুষ এবং ২১ লাখ ৩ হাজার ৭৯৩ জন নারী রয়েছেন।

সোমবার (৫ এপ্রিল) সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ৪১ হাজার ৩২২ জন করোনা টিকা নিয়েছেন। এদের মধ্যে পুরুষ ২৩ হাজার ৬৯৮ এবং নারী ১৭ হাজার ৬২৪ জন।

এ পর্যন্ত ঢাকা বিভাগে টিকা গ্রহণ করেছেন ১৭ লাখ ১১ হাজার ৩২৩ জন, এরমধ্যে শুধুমাত্র ঢাকা মহানগরীতে ৮ লাখ ৬৮ হাজার ১৬৮ জন। এছাড়া ময়মনসিংহ বিভাগে ২ লাখ ৭৫ হাজার ১৮৭, চট্টগ্রাম বিভাগে ১১ লাখ ১৫ হাজার ৩৩৮, রাজশাহী বিভাগে ৬ লাখ ৩৫ হাজার ৯৭৩, রংপুর বিভাগে ৫ লাখ ৬৮ হাজার ৮২১, খুলনা বিভাগে ৭ লাখ ৪ হাজার ২৭০, বরিশাল বিভাগে ২ লাখ ৪০ হাজার ৩৭২ এবং সিলেট বিভাগে ২ লাখ ৮৮ হাজার ২১০ জন করোনা টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন।

গত ২৭ জানুয়ারি দেশে টিকাদান কর্মসূচি শুরু করে। প্রথম দিন টিকা দেওয়া হয় ২৬ জনকে।

করোনাভাইরাসের টিকাদান কার্যক্রমের দ্বিতীয় দিনে ২৮ জানুয়ারি রাজধানীর পাঁচ হাসপাতালে মোট ৫৪১ ব্যক্তিকে টিকা দেওয়া হয়। আর ৭ ফেব্রুয়ারি সারাদেশে টিকা কার্যক্রম শুরু হয়। এ দিনে সারাদেশে টিকা নেন ৩১ হাজার ১৬০ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ২৩ হাজার ৮৫৭ জন এবং নারী সাত হাজার ৩০৩ জন।

শুরুতে ৫ এপ্রিল টিকার প্রথম ডোজ বন্ধ করে দেওয়ার কথা বলা হলেও অধিদপ্তর জানিয়েছে, পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত দ্বিতীয় ডোজের সঙ্গে প্রথম ডোজও চলবে।
অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা জানান, দেশব্যাপী চলমান প্রথম ডোজের করোনা টিকা বন্ধ হচ্ছে না, এটি অব্যাহত থাকবে। একইসঙ্গে আগামী ৮ এপ্রিল থেকে দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেয়া শুরু হবে।

তিনি বলেন, প্রথম ডোজ টিকা বন্ধ করে দেওয়া হবে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। ৮ এপ্রিল দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে প্রথম ডোজের টিকাও দেওয়া হবে।


  • 9
    Shares

[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]