১৩১ রানে গুটিয়ে গেল বাংলাদেশ

  • 13
    Shares

ক্রীড়া ডেস্ক: ব্যাট হাতে দাঁড়াতেই পারলো না বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ড বোলারদের সামনে একে একে অসহায়ভাবে আত্মসমর্পণ করলো তামিম-মুশফিকরা। রানের চাকা না ঘুরিয়েও উইকেটে ঠিকে থাকাটাই যেন ছিল যুদ্ধের মতো। নিয়মিত উইকেট বিলিয়ে দেওয়ার মিছিলে ৫৫ বল বাকি রেখেই ১৩১ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ।

টসে হেরে অধিনায়ক তামিম ইকবালের কণ্ঠে ছিল, শুরুর দশ ওভারের গুরুত্বপূর্ণের কথা। ঠিক যেন তাই হলো। প্রথম পাওয়ার প্লেতেই ব্যাকফুটে চলে যায় বাংলাদেশ। এরপর আগে ঘুড়ে দাঁড়াতে পারেনি। সফরকারীদের উপর চাপ তৈরি করে নিউজিল্যান্ড একে একে আদায় করে নিয়েছে উইকেট।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে অধিনায়ক তামিম ইকবাল দারুণ কিছুর আভাস দিলেও তা মিলিয়ে যায়। ব্যক্তিগত ১৩ রানেই লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন তিনি। ইনিংসের প্রথম বলেই তামিমকে পরাস্ত করেন ট্রেন্ট বোল্ট।

তামিমের বিদায়ের দুই বল পরেই তিনে ব্যাট হাতে নামা সৌম্য সরকারকেও বিদায় করেন বোল্ট। বাজে শট খেলে ডেভন কনওয়ের হাতে ক্যাচ দিয়ে রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফিরেন সৌম্য।

এরপর তৃতীয় উইকেটে ২৩ রান যোগ করেন মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাস। উইকেটে থিতু হয়ে যাওয়া লিটন দাস্র সহজ ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন। জেমস নিশামের প্রথম ওভারেই ক্যাচ তুলে দিয়ে বলের দিকে তাকিয়ে থাকা ছাড়া আর কিছুই করার ছিল না। ৩৬ বলে ১৯ রান করেন লিটন।

উইকেট হারানোর মিছিলে মুশফিকুর রহিম শুরু থেকেই টিকে থাকার সংগ্রাম করছিলেন। ২৫ বলে ৫ রান নিয়েও ধৈর্য্যশীল ব্যাট করেছেন তিনি। তবে রানের গতি বাড়াতে গিয়ে মুশফিকও ব্যর্থ হয়েছেন।

নিশামের বলে পয়েন্টে থাকা মার্টিন গাপতিলের হাতে ক্যাচ দেন তিনি। ৪৯ বলে ২৩ রানেই সমাপ্তি ঘটে মুশফিকের ইনিংস। মুশফিক চলে যাওয়ার পরের ওভারেই সাজঘরে ফিরেন মোহাম্মদ মিঠুন। ২৭ বলে ৯ রান করেন মিঠুন।

দলীয় ৭২ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। ফলে রানের চাকা ঘুরানো ছাড়াও ব্যাটসম্যানদের টিকে থাকাটাই বড় চেলেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায়। ১০ বলে ১ রান করে মেহেদী হাসান মিরাজ বোল্ড হলে ৭৮ রানে ষষ্ঠ উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

এরপর অভিষিক্ত মেহেদী হাসান ছক্কা হাঁকিয়ে খাতা খুললেও ইনিংস লম্বা করতে পারেননি। ১৪ রান করে সান্টনারের বলে বিদায় নেন তিনি। তাসকিনকে সাথে নিয়ে হাত খুলে খেলতে গিয়ে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও ব্যর্থ হন। ৫৪ বলে ২৭ রান করা রিয়াদও ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন।

১২৫ রানে রিয়াদের বিদায়ের পর বাংলাদেশের ইনিংসে যোগ হয় আরও ৬টি রান। বোল্টের বলে বোল্ড হওয়ার আগে হাসান মাহমুদের ব্যাট থেকে আসে ১টি রান। আর এক বল পরেই ১০ রান করা তাসকিনকে বিদায় করে বাংলাদেশের ইনিংসের সমাপ্তি ঘটান বোল্ট। অন্যপ্রান্তে ১ রানে অপরাজিত ছিলেন মোস্তাফিজ।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে বল হাতে ৪ উইকেট শিকার করেছেন ট্রেন্ট বোল্ট। এছাড়া ২টি করে উইকেট নিয়েছেন নিশাম ও স্যান্টনার।##


  • 13
    Shares

[প্রিয় পাঠক, আপনিও (www.barisaltribune.com) বরিশালট্রিবিউনের অংশ হয়ে উঠুন। আপনার এলাকার যে কোন  সংবাদ, লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-barisaltribune@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]